Breaking News
Home / Probash / সৌদি প্রবাসীদের যাত্রা ভোগান্তি, কথা বলেনি সৌদিয়া এয়ারলাইন্স

সৌদি প্রবাসীদের যাত্রা ভোগান্তি, কথা বলেনি সৌদিয়া এয়ারলাইন্স

টাকা দিয়েও মিলছে না হোটেলের রুম ভাড়া। অবশেষে সৌদিতে হোটেল বুকিংয়ের দায়িত্ব যাত্রীদের ওপর দিয়ে নিজেদের দায় এড়াল সৌদিয়া এয়ারলাইন্স। এতে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে সময়মতো প্রবাসীদের সৌদি আরব যাত্রা। তথ্যে ও নির্দেশনায় গড়মিল থাকায় মঙ্গলবারও (২৫ মে) কয়ে’কশ যাত্রী যেতে পারেননি। একইসঙ্গে সিন্ডিকেট করে অতিরিক্তি টাকা দাবি করারও অভিযোগ করেন অনেকে। যদিও এ বিষয়ে স্পষ্ট করে কোনো কথা বলেনি সৌ’দিয়া এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ।

কয়েকদিন ধরেই ভোগান্তি আর হতাশা নিয়ে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে সৌদিয়া এয়ারলাইন্স কার্যালয়ে ধ’রনা দিলেও অনিশ্চিত সৌদি যাত্রা। এতে ভারী ভারী ব্যাগ, লাগেজ নিয়ে ভোগান্তি পোহাচ্ছেন শত শত সৌদি প্রবাসী ও সাথে থাকা স্বজনরা।সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের ত’থ্যে গড়মিল ও দায় এড়ানো নির্দেশনায় উভয় সংকটে পড়েন তারা। ফ্লাইটের টিকিট কেনা আর সৌদি সরকারের শর্তপূরণে কোয়ারেন্টাইনের জন্য হোটেল বুকিং দিতে ভোর থে’কেই অপেক্ষা করেন এয়ারলাইন্স কার্যালয়ে।

মঙ্গলবার (২৫ মে) সকাল ১০টায় যাত্রীদের এয়ারলাইন্সের পক্ষ থেকে এক দফা জানানো হয় বর্তমান জ’টিলতায় ভিসা ও টিকিটের মেয়াদ থাকবে এক বছর। যদিও প্রমাণ ছাড়া তা মানতে নারাজ যাত্রীরা।দুপুর পরবর্তী যখন হোটেল হলিডের অ্যাপ ও কোনো মাধ্যমেই যখন মিলছে না হোটেল বুকিং। তখন দ্বিতীয় দফায় যাত্রীদের জানানো হয় এয়ারলাইন্স নয়, হোটেল বুকিং দিতে হবে নিজ দায়িত্বেই। একইসঙ্গে অভিযোগ পাওয়া গেল সি’ন্ডিকেটের মাধ্যমে অতিরিক্ত অর্থ দাবিরও।

এদিকে, করোনা সংক্রমণরোধে সৌদি সরকারের নতুন নতুন নির্দেশনায় নাজেহাল হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে আসা প্রবাসীরাও। সৌদি এয়ারলাইন্সের কার্যালয়ে নতুন জটিলতার সম্মুখীন হন তারা। মঙ্গলবার দুপুর ২টার জেদ্দা ফ্লাইট ধরতে হোটেল বুকিংয়ের জন্য বিমানবন্দরে এসে যাত্রীরা জানতে পারেন, সার্ভার ডাউন থাকায় বুকিং কার্যক্রম বন্ধ। যাত্রা অনিশ্চিত হওয়ায় দুশ্চিন্তায় পড়েছেন ভিসা ও আকামার মেয়াদ ফুরিয়ে আসা যাত্রীরা।

সম্প্রতি সৌদি সিভিল এভিয়েশনের জারি করা শর্ত মতে দুই ডোজ করোনা ভ্যাকসিন নেয়া যাত্রীদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না।এদিকে, হোটেল কোয়ারেন্টিনের জন্য সৌদি প্রবাসী কর্মীদের মাথাপিছু ৬০ হাজার টাকা ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ তহবিল থেকে দিয়ে দেয়ার দাবি জানিয়েছে বায়রার সম্মিলিত সমন্বয় ফ্রন্ট।

বায়রার ‘সম্মিলিত সমন্বয় ফ্রন্ট’র মহাসচিব মোস্তফা মাহমুদ বলেন, অপ্রত্যাশিত ঘোষণার কারণে প্রবাসী শ্রমিক যেমন বিপদে পড়েছেন আমরাও তেমনি বিপদে পড়েছি। এই মুহূর্তে অতিরিক্ত ৬০ হাজার টাকা এই খরচটা যেহেতু কল্যাণ ফান্ড গড়ে উঠেছে এই শ্রমিকদের টাকা থেকে, প্রত্যেকটা শ্রমিক বিদেশ যাওয়ার সময় আমরা একটা টাকা কল্যাণ তহবিলে জমা দেই। সেই ফান্ডে শত শত কোটি টাকা সেখানে আছে। কয়েক হাজার কোটি টাকা আছে। শ্রমিকদের ফান্ড শ্রমিকদের জন্য ব্যয় করার জন্য আমরা সরকারকে অনুরোধ জানাচ্ছি।

কোন কমিটি না থাকায় পরিস্থিতির গুরুত্ব বিবেচনায়, বায়রার নির্বাচন কেন্দ্রিক প্লাটফর্ম ‘সম্মিলিত সমন্বয় ফ্রন্ট’ মঙ্গলবার (২৫ মে) সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে এ কথা জানান বায়রার নেতারা।

About ja

Check Also

ভ্রমণকারীদের জন্য সুখবর দিলো আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবি

ভ্রমণকারীদের জন্য সুখবর দিলো আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবি। যে কোনো দেশ থেকে ভ্রমণ ভিসাধারী এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *